বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮ এবং সম্পর্কের উপর তার প্রভাব

বিশ্বকাপ ফুটবল অনেকটা উৎসবের মত। প্রতি ৪ বছর পর পর এর আয়োজন করা হয়। এজন্য হয়তো এর উত্তেজনা অন্যান্য লিগ ফুটবলের তুলনায় বেশি থাকে। মানুষজন এসময় খেলা নিয়ে এতটাই মগ্ন থাকে যে সেটা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। আমাদের দেশের মানুষ প্রধানত ২ টি দলকে সমর্থন করে থাকে- আর্জেন্টিনা এবং ব্রাজিল। তবে এই বিশ্বকাপে অনেকেই জার্মানি, স্পেন ও আরও অনেক দলকে সমর্থন করে যাচ্ছে। আমাদের দেশে সমর্থকরা এতটাই আবেগপ্রবণ যা বিশ্বের কোথাও দেখা যায় না, খুবই বিরল । গতকাল শেষ হল খুব উত্তেজনামুলক ২য় রাউন্ড। আগামী ৬ তারিখ থেকে শুরু হবে কোয়ার্টার-ফাইনাল। এবার কোয়ার্টার ফাইনাল এ যাচ্ছে উরুগুয়ায়, ফ্রান্স, ব্রাজিল, বেলজিয়াম, রাশিয়া, ক্রোয়েশিয়া, সুইডেন এবং ইংল্যান্ড। এবার বিশ্বকাপটি অনেক অনিশ্চিত অবস্থায় যাচ্ছে, এতটাই অনিশ্চিত যে এখনও বুঝা যাচ্ছে না কে বিজয়ী হতে পারে। যেসব দলগুলো আমরা ভেবেছি অনেকদূর যাবে তারাই আগে বাদ পরে যাচ্ছে।

বিশ্বকাপ ফুটবল | ফুটবল উন্মাদনা ও সম্পর্কে তার প্রভাব

এইতো গেল বিশ্বকাপের এখনকার খবরাখবর। এখন কথা হচ্ছে এই উন্মত্ততা কিভাবে দাম্পত্য জীবনকে প্রভাবিত করে। বিশ্বকাপের এই পাগলামি আসলে ঐরকম বিরুপ প্রভাব ফেলে না। এটা বরং সম্পর্ককে আরও মজবুত ও মধুর করে তোলে। যদি স্বামী-স্ত্রী দু’জনই ফুটবল পছন্দ করেন তাহলে এই সময়টি তাদের জন্য অনেক উত্তেজনাপূর্ণ। দু’জন যদি আবার দু’টি ভিন্ন দলকে সমর্থন করেন তাহলে তো কথাই নেই, তখন খেলা দেখার উৎসাহ আরও দ্বিগুণ হারে বেরে যায়। তাদের দুই জনের মধ্যে চলতে থাকে দল নিয়ে খুনসুটি। খেলা নিয়ে আলোচনা, পছন্দের দল হারলে সেই দল নিয়ে মজা করা এইগুলাতো নিত্য নৈমিত্তিক বিষয়। এসময় টিভির রিমোট নিয়ে কাড়াকাড়ি লেগে যায় যদি শুধুমাত্র একজন খেলা দেখতে পছন্দ করেন। যারা বিশ্বকাপ অনুসরণ করেন না তাদেরকে বলবো, আপনার সহধর্মীর মনোভাব বিবেচনা করে কিছুটা সময় ধৈর্য ধরে বসবেন, ৯০ মিনিট তো দেখতে দেখতেই কেটে যায়। এই খেলার আমেজ তো শুধু ১ মাসই থাকবে, সুতরাং এক সামান্য খেলা নিয়ে সম্পর্ক তিক্ত করার কোন মানে নেই।

আশা করি সবাই বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮ রাশিয়া অনেক উপভোগ করছেন। আপনি কোন দল সমর্থন করছেন এবং কোন দল এবার জিততে পারে অবশ্যই আমাদেরকে কমেন্টে জানাবেন।

Share on

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.